৬ই শ্রাবণ, ১৪৩১| ২১শে জুলাই, ২০২৪| ১৪ই মহর্‌রম, ১৪৪৬| ভোর ৫:৫৭| বর্ষাকাল|

আরাফাত ময়দানে সমাবেত হয়েছেন হাজিরা, খুতবা শুরু

Reporter Name
  • Update Time : শনিবার, ১৫ জুন, ২০২৪
  • ১২ Time View

জয় বাংলা আন্তর্জাতিক  :

সৌদি আরবের মক্কার ২০ কিলোমিটার দক্ষিণ-পূর্বে আরাফাতের ময়দানে পবিত্র হজের খুতবা শুরু হয়েছে। আজ শনিবার বাংলাদেশ সময় বিকেল সোয়া ৩টার দিকে আরাফাত ময়দানের নামিরাহ মসজিদ থেকে হজের খুতবা পাঠ শুরু করেন পবিত্র মসজিদুল হারামের ইমাম ও খতিব শায়েখ ড. মাহের আল মুয়াইকিলি।

আরবি বর্ষপঞ্জি অনুসারে আজ ৯ জিলহজ। এটি পবিত্র ‘আরাফাত দিবস’ হিসেবেও পরিচিত। হজের প্রধান আনুষ্ঠানিকতা পালনে বিশ্বের ১৫ লক্ষাধিক মুসল্লি আজ আল্লাহর কাছে ক্ষমা প্রার্থনায় আরাফত ময়দানে সমবেত হয়েছেন। হজের আনুষ্ঠানিকতার কঠিন দিনে ক্রমবর্ধমান তীব্র গরমের মধ্যেই এ ময়দানে হাজিরা তাসবি পাঠ, কোরআন তিলাওয়াত, দোয়া ও মোনাজাতের মাধ্যমে আল্লাহর কাছে গুনাহ মাফের প্রার্থনা জানাবেন। এরপর পাহাড়ের চূড়া জাবালে রহমতে আরোহণ করবেন। এখানেই হযরত মোহাম্মদ (সা.) তার বিদায় হজের শেষ ভাষণ দিয়েছিলেন।

এর আগে গতকাল শুক্রবার মিনায় তাঁবুতে অবস্থান করেছেন হাজিরা। সেখানে ইবাদত বন্দেগিতে দিন ও রাত পার করেছেন তারা। সাদা দুই টুকরা কাপড়ে শরীর ঢেকে হজযাত্রীরা আজ মিনায় ফজরের নামাজ আদায়ের পরই আল্লাহকে কাছে পাওয়ার এক তীব্র আকাঙ্ক্ষায় পবিত্র আরাফাতের ময়দানের উদ্দেশে রওনা হন। মুহুর্মুহু উচ্চারণ করছেন— ‘লাব্বাইকা আল্লাহুম্মা লাব্বাইক, লাব্বাইকা লা শারিকা লাকা লাব্বাইক, ইন্নাল হাম্‌দা, ওয়ান্‌নি’মাতা লাকা ওয়াল্‌মুল্‌ক্‌, লা শারিকা লাকা’।

পবিত্র হজে এবার খুতবা দেওয়ার আগে আরাফাতের ময়দানের নামিরাহ মসজিদে জোহর নামাজের বিশাল জামাতে ইমামতি করেন মসজিদুল হারামের ইমাম ও খতিব শায়েখ ড. মাহের আল মুয়াইকিলি।

মরুভূমির গ্রীষ্মের তাপমাত্রা ৪৩ ডিগ্রি সেলসিয়াস (১০৯.৪ ডিগ্রি ফারেনহাইট) দাঁড়াতে পারে বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে। যা বিশেষ করে এই দিনের প্রার্থনা এবং কোরান তেলাওয়াতের সময় বয়স্কদের জন্য চ্যালেঞ্জ তৈরি করে।

ঘানার ২৬ বছর বয়সী আব্রামান হাওয়া বলেন, হজ সম্পূর্ণ হতে কমপক্ষে পাঁচ দিন সময় লাগে এবং বেশিরভাগই বাইরে উন্মুক্ত স্থানে। এটা সহজ না কারণ, এখানে খুব গরম।

সৌদি কর্তৃপক্ষ হজযাত্রীদের প্রচুর পানি পান করার এবং সুর্যের তাপ থেকে নিজেদের রক্ষা করার আহ্বান জানিয়েছে। যেহেতু পুরুষদের টুপি পরা নিষিদ্ধ, তাই অনেকেই এ জন্য ছাতা বহন করেন।

এক সৌদি কর্মকর্তার বরাতে এএফপি জানিয়েছে, গত বছর ১০ হাজারেরও বেশি তাপজনিত অসুস্থতা রেকর্ড করা হয়েছিল, যার মধ্যে ১০ শতাংশ হিটস্ট্রোক।

আরাফাতের পর তারা মুজদালিফায় যাবে। সেখানে তারা রবিবার মিনায় প্রতীকী ‘শয়তানকে পাথর নিক্ষেপ’ অনুষ্ঠানের জন্য নুড়ি সংগ্রহ করবেন।

Please Share This Post in Your Social Media

More News Of This Category